হুয়াওয়েকে ‘লিডার’ স্বীকৃতি দিল গার্টনার ম্যাজিক কোয়াট্রেন্ট

Uncategorized অর্থনীতি ঢাকা বানিজ্য বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশেষ প্রতিবেদন

নিজস্ব প্রতিবেদক  :  ঢাকা, বাংলাদেশ, বৃহস্পতিবার  ৫ অক্টোবর, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে’ কে টানা অষ্টমবারের মতো ‘লিডার’ হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গার্টনার ম্যাজিক কোয়াডেন্ট। ‘প্রাইমারি স্টোরেজ’ ফিচারের জন্য ২০২৩ সালে প্রতিষ্ঠানটিকে এ স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে। ২০১৬ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে এ স্বীকৃতি পেয়ে আসছে হুয়াওয়ে।


বিজ্ঞাপন

গার্টনার ম্যাজিক কোয়াড্রেন্ট গবেষণা পদ্ধতি ক্রমবর্ধমান বাজারে ‘লিডার্স” ভিশনারিজ’ নিশে প্লেয়ার্স’ ‘ও চ্যালেঞ্জার্স এ চার ধরনের প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান চিহ্নিত করে এবং একটি প্রতিযোগিতামূলক গ্রাফিক্যাল পর্যবেক্ষণ তুলে ধরে। ২০২২ সাল জুড়ে হুয়াওয়ের প্রাথমিক স্টোরেজ ব্যবস্থা- ‘আলটিমেট রিলায়েবিলিটি’, ‘মাল্টি-ক্লাউড ইকোসিস্টেম’, ‘ডেটা রেজিলিয়েন্স ও এআইওপিএস ইন্টেলিজেন্ট ম্যানেজমেন্ট, বিশেষ করে এ চারটি ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য উন্নতি করেছে।

হুয়াওয়ের এ প্রাথমিক স্টোরেজ জিও-রিডান্ড্যান্ট ৪ডিসি ডিজাস্টার রিকভারি (ডিআর) সল্যুশন প্রদান করে। এটি কাজ চলাকালীন একইসঙ্গে অনেক অ্যাপের গেটওয়ে ফ্রি নিরবচ্ছিন্নভাবে কাজ সম্পন্ন করার সুবিধা দেয়, যাতে এটি ১৯,১৯৯৯১ শতাংশ নির্ভরযোগ্যতা দেবার পাশাপাশি ডিআর কেন্দ্রের রিসোর্সের পরিপূর্ণ ব্যবহার সম্ভব হয়।

ডেটা রেজিলিয়েন্স নিশ্চিত করার পরিপ্রেক্ষিতে, ইন্ডাস্ট্রির মূলধারার কন্টেইনার প্ল্যাটফর্ম জুড়ে স্মার্টফোনের অ্যাপ্লিকেশনগুলি নির্বিঘ্নে সুরক্ষিত রয়েছে কি না তা নিশ্চিত করে হুয়াওয়ে স্টোরেজ। কুবারনেটিজ, ওপেনশিষ্ট বা ব্র্যাঞ্চার যাই হোক না কেন, এটি ডেটা ব্যাকআপ ও ক্লাউড স্ট্র্যাটেজির কার্যক্রম পরিচালনা ও প্রয়োগের ক্ষেত্রে ক্লাউডের সঙ্গে সংযোগ স্থাপনে সহায়তা করতে একটি ক্লাউড-নেটিভ ফাউন্ডেশন সরবরাহে ভূমিকা রাখে।

একইসঙ্গে, হুয়াওয়ে স্টোরেজ মাল্টিলেয়ার র্যানসামওয়্যার প্রটেকশন (এমআরপি) সুবিধা প্রদান করে থাকে। এটি

র‍্যানসামওয়্যার ইন্ডাস্ট্রির প্রথম প্রযুক্তি যেখানে র্যানসামওয়্যার শনাক্তকরণ, স্টোরেজ এনক্রিপশন, এয়ার গ্যাপ, স্ন্যাপশটের নিরাপত্তা প্রদান ও রাইট ওয়ান্স, রিড মেনি (ওয়র্ম) প্রভৃতি প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়।

হুয়াওয়ের ডেটা ম্যানেজমেন্ট ইঞ্জিন (ডিএমই) প্ল্যাটফর্ম একটি ৩-লেয়ারের এআই (কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা) নির্মাণ কৌশলের ওপর ভিত্তি করে পরিচালিত হয়, যাতে একটি পেজের মধ্যেই এর রিসোর্সগুলোকে মনিটর করা যায় এবং সার্ভিস প্রভিশনিং, ইন্টেলিজেন্ট ওঅ্যান্ডএম (অপারেশন্স অ্যান্ড মেইনটেন্যান্স) এবং ডেটা ম্যানেজমেন্ট সরবরাহ করা সম্ভব হয়।

হুয়াওয়ে ওশানস্টোর ডরেডো লাতিন আমেরিকা, ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্য এবং এশিয়া প্যাসিফিক সহ ১৫০টি দেশ ও অঞ্চল জুড়ে অল-ফ্ল্যাশ স্টোরেজের মাধ্যমে এর ব্যবসার পরিধি বিস্তৃত করেছে, এবং গ্রাহকদের জন্য অর্থায়ন, ক্যারিয়ার, উৎপাদন, স্বাস্থ্যসেবা, সরকার ও পাবলিক অ্যাফেয়ার্স- এর মতো বিবিধ ক্ষেত্রে সেবা প্রদান করেছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *