দর্শক কে হতাশ করলেন ভারতীয় মডেল ও চলচ্চিত্র অভিনেত্রী নোরা ফাতেহি ১৫ হাজারের টিকিট কেটে ১৫ সেকেন্ড নাচ দেখলেন দর্শক

Uncategorized বিনোদন



!! মঞ্চে উঠে নোরা দর্শকদের উদ্দেশে বলেন, ‘ঢাকায় এটি আমার দ্বিতীয় সফর,আপনাদের ভালোবাসায় আমি মুগ্ধ, ঢাকার মানুষদের আমি ভালোবাসি’!!



বিনোদন প্রতিবেদক ঃ বলিউড তারকা নোরা ফাতেহির ঢাকায় আসা নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছিল বেশ কয়েকবার। শেষবার জানা গিয়েছিল কয়েকটি শর্ত মেনে আসতে পারবেন। অবশেষে সেটিই সত্যি হলো। অনেক নাটকীয়তা শেষে ১৮ নভেম্বর দুপুর দেড়টায় ঢাকায় পৌঁছান নোরা। শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) উইমেন লিডারশিপ কর্পোরেশন আয়োজিত “গ্লোবাল এচিভার অ্যাওয়ার্ড-২০২২”-এ অংশ নেন বলিউড তারকা নোরা ফাতেহি।
মঞ্চে উঠার পর দর্শক সারিতে তখন “নোরা নোরা” বলে চিৎকার। আগ্রহী দর্শকদের উদ্দেশে হাতের ইশারায় চুমু ছুঁড়ে দেন তিনি। গানের তালে তালে সবার সামনে এসে উপস্থিত হলেও নাচের কোনো পরিবেশনায় অংশ নিলেন না।
অনেক আলোচনার জন্ম দিয়ে ঢাকায় এসে এই বলিউড অভিনেত্রী শুধু অনুষ্ঠানের পুরস্কার বিতরণী অংশেই সীমাবদ্ধ থাকলেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ফটো সাংবাদিক শামসুল হক রিপন বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, “নোরা ফাতেহি হলভর্তি দর্শকদের একরকম হতাশই করলেন। বিজয়ীদের হাতে কিছু ক্রেস্ট তুলে দিয়ে দুটো কথা বলে নেমে গেলেন। একেবারেই নিষ্প্রভ ছিলেন।” তিনি আরও বলেন, “নোরাকে মঞ্চে স্বাগত জানানোর সময় তার ‘দিলবার’ গানটি বাজছিলো। তখন আমাদের দেশের একটি নৃত্যদল নাচছিলো মঞ্চে। এরপর নোরা মঞ্চে উঠে কয়েক সেকেন্ডের একটা কিউ দিলেন তাদের সঙ্গে। নোরার নাচ এটুকুই।” মঞ্চে এসে নোরা বললেন, “এটি ঢাকায় আমার দ্বিতীয় সফর। আপনাদের ভালোবাসায় আমি মুগ্ধ। ঢাকার মানুষদের আমি ভালোবাসি। সুযোগ পেলে আবার আসবো।” নারীদের উদ্দেশে তিনি বললেন, “নিজের স্বপ্ন পূরণে সাহস এবং শক্তি নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে।” এর আগে সন্ধ্যা ৭টায় “জয় বাংলা বাংলার জয়” গান দিয়ে শুরু হয় অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান। নোরা ফাতেহি অনুষ্ঠানের মূল আকর্ষণ হলেও মঞ্চ মাতিয়েছেন বাংলাদেশি শিল্পীরা। এরপর ফ্যাশন শো’তে র‍্যাম্পে হাঁটেন দেশী মডেলরা। তাদের মধ্যে ছিলেন দেশের জনপ্রিয় অভিনেত্রী পূজা চেরীও। মঞ্চে নববধূ রূপে দেখা যায় পূজাকে। উল্লেখ্য, সমাজের বিভিন্ন ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় কয়েকজন নারীকে পুরস্কৃত করা হয় এ অনুষ্ঠানে। অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল আজিজ আহমেদ, বিটিভির মহাপরিচালক সোহরাব হোসেন সহ আরও অনেকে। ১৫ হাজারের টিকিটে ১৫ সেকেন্ড নাচলেন নোরা, ‘প্রতারণা’ বলছেন দর্শক, এক দর্শক বলেন, নোরা জাস্ট এলেন, টিকটকের মতো ১৫ সেকেন্ড নাচলেন। দু-চারটা কথা বলে পুরস্কার দিয়ে চলে গেলেন। মাত্র দুই মিনিটের জন্য আসলেন। আমরা আর কিছুই দেখতে পাইনি। নানা নাটকীয়তার পরে বলিউড তারকা নোরা ফাতেহি ঢাকায় এলেও মন ভরেনি দর্শকের। কয়েকটি শর্ত মেনে ঢাকায় আসতে হয়েছে তাকে। শুক্রবার (১৮ নভেম্বর) উইমেন লিডারশিপ কর্পোরেশন আয়োজিত “গ্লোবাল এচিভার অ্যাওয়ার্ড-২০২২”-এ অংশ নেন এই বলিউড তারকা। মঞ্চে উঠার পর দর্শক সারি থেকে “নোরা” “নোরা” চিৎকার উঠলেও আগ্রহী দর্শকদের উদ্দেশে শুধু উড়ন্ত চুমু ছুঁড়েছেন তিনি। গানের তালে তালে মঞ্চে উপস্থিত হলেও নাচের কোনো পরিবেশনায় অংশ নেননি। শুধু অনুষ্ঠানের পুরস্কার বিতরণী অংশেই সীমাবদ্ধ থাকেন।
এই অনুষ্ঠানের প্রতিটি টিকিটের দাম ছিল ৫ হাজার টাকা থেকে ১৫ হাজার টাকার মধ্যে। এত টাকার টিকেট কেটে নোরার দুই মিনিটের বক্তব্য শুনিয়ে দেওয়াকে দর্শকরা “প্রতারণা” হিসেবে দেখছেন।অনুষ্ঠান শেষে ভিআইপি টিকেটধারী এক দর্শক অনলাইন সংবাদমাধ্যম বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, “ভিআইপি কাস্টমার হিসেবে যে সম্মান প্রাপ্য, তার কিছুই পাইনি। আমাদের কোনো সম্মানই দেখানো হয়নি। নোরা জাস্ট এলেন, টিকটকের মতো ১৫ সেকেন্ড নাচলেন। দু-চারটা কথা বলে পুরস্কার দিয়ে চলে গেলেন। তাকে দেখে খুবই ক্লান্ত লাগছিল। মনে হচ্ছিল তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে আনা হয়েছে। মাত্র দুই মিনিটের জন্য আসলেন। আমরা আর কিছুই দেখতে পাইনি।” মৌসুমী আক্তার নিঝুম নামে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থী বলেন, “দেখে মনে হলো শুধু আসার জন্য তাকে টাকা দেওয়া হয়েছে, নাচার জন্য দেওয়া হয় নাই “
নোরার নাচের অনুশীলনের ভিডিও “ওমেন লিডারশিপ কর্পোরেশন”-এর পেইজে আপলোড দিয়ে বলা হয়েছিল “আর ইউ এক্সাইডেট টু সি দিস ভিডিও?” এরপরেই ছিল “গ্লোবাল অ্যাচিভার্স অ্যাওয়ার্ড”-এর ব্যানার। তাছাড়া নোরার নাচের একাধিক ক্লিপ দেখিয়ে দর্শক টানা হয়েছে। এটা স্পষ্টত দর্শকদের সঙ্গে প্রতারণা।”

এস এম আব্দুল্লাহ আল মামুন নামে এক দর্শক অনুষ্ঠান শেষে বলেন, “নোরাকে দেখে মনে হয়েছে জোর করে আনছে। সে আসতে চায় নাই।”

অনুষ্ঠান শেষে রিফাত জাহান নামে এক দর্শক বলেন, “প্রায় পাঁচশ দর্শক ছিল। নোরা না নেচে নেমে যাওয়ার পর ভিআইপি দর্শকরা প্রায় চুপচাপই ছিলেন। তারা বেশির ভাগ টিকেট উপহার পেয়ে এসেছিলেন। কিন্তু যারা টিকেট কেটে দেখতে এসেছিলেন, তারা মনঃক্ষুণ্ন হয়েছেন। হইচই করেছেন। কিন্তু কোনো লাভ হয়নি।”

মহসিনা খান নামের ভিআইপি টিকেটের এক দর্শক বলেন, “নোরা ফাতেহির ফেসবুক ইনস্টাগ্রামে গেলেই তো হাই হ্যালো শোনা যায়। আমরা এসেছিলাম নাচ দেখতে। আমাদের এভাবে হতাশ করা উচিত হয় নাই।” আয়োজনের অব্যবস্থাপনা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন সোনালী বিশ্বাস নামের এক দর্শক। তিনি বলেন, “স্টেজে এর লাইটিং দেখে মনে হচ্ছে কুয়াশা পড়ছে। অথচ নোরা স্টেজে উঠলে আরও দ্যুতি ছড়ানোর কথা। এত বাজে আয়োজনে আন্তর্জাতিক শিল্পীদের এনে দর্শকের সাথে প্রতারণা করা ছাড়া আর কিছুই না।


Leave a Reply

Your email address will not be published.