যশোর সদর হাসপাতাল ও দিনাজপুর পার্বর্তীপুর পিআইও দপ্তরে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে দুদকের অভিযান

Uncategorized আইন ও আদালত




!! দুদক এনফোর্সমেন্ট ইউনিট হতে ৫ টি অভিযোগের বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে এবং ২ টি দপ্তরে অভিযান পরিচালনা করা সহ ৩ টি দপ্তরে পত্র প্রেরণ করা হয়েছে !!


যশোর এবং দিনাজপুর প্রতিনিধি ঃ যশোর ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতাল এর বিরুদ্ধে সাড়ে চার কোটি টাকার চিকিৎসা সরঞ্জাম ক্রয়ের দরপত্র প্রক্রিয়ায় অনিয়মের অভিযোগে রবিবার ১১ ডিসেম্বর, দুর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত জেলা কার্যালয় যশোর হতে একটি এনফোর্সমেন্ট অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযান পরিচালনা কালে কালে টিম উক্ত হাসপাতালের ২০২২-২৩ অর্থবছরের মেডিকেল সার্জিক্যাল রিএজেন্ট (এমএসআর) মালামাল ক্রয় সংক্রান্ত রেকর্ড পত্র পরীক্ষা করে। পরীক্ষায় দেখা যায়, গত ৩ আগস্ট ২০২২ তারিখে উক্ত ক্রয় প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে দরপত্র আহবান করা হয়। তৎপ্রেক্ষিতে ১৮২ টি প্রতিষ্ঠান দরপত্র ক্রয় করলেও মাত্র ১৩ টি প্রতিষ্ঠান দরপত্র জমা প্রদান করে।

বিভিন্ন অনিয়মের কারণে দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি গত ১৬ অক্টোবর ২০২২ তারিখে উক্ত দরপত্র প্রক্রিয়া বাতিল করে পুনঃদরপত্র আহবানের সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন এবং পরবর্তীতে গত ২৩ অক্টোবর ২০২২ তারিখে পুনঃদরপত্র আহবান করা হয়।

৫৫ টি প্রতিষ্ঠান দরপত্র ক্রয় করে এবং ৪৩ টি প্রতিষ্ঠান দরপত্র জমা প্রদান করে। দরপত্র মূল্যায়ন কমিটি কর্তৃক ৩৮টি প্রতিষ্ঠান রেস্পন্সিভ হিসেবে বিবেচিত হয়। রেস্পন্সিভ হিসেবে বিবেচিত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে কার্যাদেশ প্রদানের প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। প্রাথমিকভাবে উক্ত টেন্ডার প্রক্রিয়ার কার্যক্রমে কোন অনিয়ম পরিলক্ষিত হয়নি। এ বিষয়ে পরবর্তীতে বিস্তারিত প্রতিবেদন দাখিল করাহবে।

দিনাজপুর পার্বর্তীপুর পিআইও এর কার্যালয়ের বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রকল্প,কাবিখা,কাবিটায় অনিয়মের অভিযোগের প্রেক্ষিতে দুর্নীতি দমন কমিশন ,জেলা কার্যালয় দিনাজপুর হতে রবিবার ১১ ডিসেম্বর, একটি এনফোর্সমেন্ট অভিযান পরিচলনা করা হয়। অভিযানকালে অভিযোগ সংশ্লিষ্ট প্রকল্পসমূহ সরেজমিনে পরিদর্শন করা হয় এবং প্রত্যক্ষদর্শীদের সাথে কথা বলা হয়। তারা কার্যসম্পাদিত হয়েছে এই মর্মে জানান।

এছাড়া সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথেও উক্ত বিষয় সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। কার্যসম্পাদনের পরিমান ও যথার্থতা, পরবর্তীতে নথিপত্র সংগ্রহ এবং বিশেষজ্ঞ মতামত গ্রহণ পূর্বক সঠিক ভাবে নিরূপণ করে বিস্তারিত ভাবে প্রতিবেদন রূপে দাখিল করা হবে।

এছাড়াও দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে (হটলাইন-১০৬) আগত অভিযোগের প্রেক্ষিতে ব্যবস্থা গ্রহণপূর্বক কমিশনকে অবহিত করার জন্য ০৩ টি দপ্তরে দুদক এনফোর্সমেন্ট ইউনিট হতে পত্র প্রেরণ করা হয়েছে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.