বাংলাদেশের আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সক্ষমতা বাড়াতে আগ্রহী যুক্তরাষ্ট্র–রিয়ার অ্যাডমিরাল এইলিন লাউবেখার

Uncategorized আন্তর্জাতিক


কুটনৈতিক বিশ্লেষক ঃ বাংলাদেশে সফরত রিয়ার অ্যাডমিরাল এইলিন লাউবেখার জানালেন বাংলাদেশের আইনশৃঙ্খলা সশস্ত্রবাহিনীর সক্ষমতা বাড়াতে আগ্রহী। এ লক্ষ্যে তারা বাংলাদেশের আইনশৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের প্রশিক্ষণ এবং প্রযুক্তিগত সহায়তা বৃদ্ধি করবে

সামরিক চুক্তি নিয়ে তিনি বলেছেন, বর্তমানে আমাদের দুই দেশের মধ্যে জিএসওএমআইএ না থাকার কারণে বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্র থেকে কয়েক ধরনের যুদ্ধবিমান, সংশ্নিষ্ট অস্ত্রসহ আরও বেশি উন্নত প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা সংগ্রহ করতে পারছে না।

জিএসওএমআইএ হয়ে গেলে বাংলাদেশ যুক্তরাষ্ট্রের প্রযুক্তি দিয়ে বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনীকে আধুনিক করতে পারবে, যা ফোর্সেস গোল ২০৩০ বাস্তবায়নে অবদান রাখবে। বিশ্বের ৭০টিরও বেশি দেশের সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের জিএসওএমআইএ রয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্র বাংলাদেশের সামরিক বাহিনীর সামর্থ্য বা সক্ষমতা বাড়াতে আগ্রহী, যাতে বাংলাদেশ নিজের সার্বভৌমত্ব নিশ্চিত করার পাশাপাশি এ অঞ্চলকে আরও বেশি সুরক্ষিত করার ব্যাপারে সহায়তা করতে পারে। যুক্তরাষ্ট্রের অত্যাধুনিক প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার সঙ্গে প্রশিক্ষণ ও রক্ষণাবেক্ষণ পরিকল্পনা থাকে। ফলে এটি শুধু কোনো পণ্য বিক্রি নয়; তার চেয়ে বেশি কিছু। চুক্তির ক্ষেত্রে বলা যায়, যুক্তরাষ্ট্র থেকে অত্যাধুনিক ও সংবেদনশীল সামরিক তথ্যসমৃদ্ধ প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম সংগ্রহ করার জন্য এসিএস চুক্তি থাকাটা পূর্বশর্ত নয়। জিএসওএমআইএ থাকাই যথেষ্ট। (তথ্য সূত্র ঃ ডিফেন্স রিসার্চ ফোরাম)


Leave a Reply

Your email address will not be published.