চা যেখানে হারবাল ঔষধের কাজ করে

Uncategorized সাস্থ্য




নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ চা যেখানে হারবাল ঔষধের কাজ করে, এই চায়ে নির্দিষ্ট পরিমানে সজিনা পাতা, চা, আদা, দারুচিনি থাকে, যা নিয়মিত পান করলে নিম্নলিখিত উপায়ে আমাদের শরীরের উপকার সাধন করতে পারে।

আসুন জেনে নেই এই চায়ের প্রস্তুত প্রনালী, ব্যাবহার বিধি ও উপকারীতা, আদা: আদাতে বেশি পরিমানে জিঞ্জেরল (Gingerol) থাকে। যা শক্তিশালী অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট বৈশিষ্ট্যযুক্ত একটি পদার্থ। আদার মধ্যে জিঞ্জেরল (Gingerol) নামক পদার্থ রয়েছে, যা ক্যান্সারের বিরুদ্ধে প্রতিরক্ষামূলক প্রভাব রয়েছে বলে মনে করা হয়।এটি মধ্যবয়সী মহিলাদের মস্তিষ্কের কার্যকারিতা উন্নত করতেও সাহায্য করতে পারে।

দারুচিনি: দারুচিনির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সক্রিয় উপাদানগুলির মধ্যে একটি হল সিনামালডিহাইড (Cinnamaldehyde)। যা ডায়াবেটিস রোগীদের জন্য ব্লাড সুগারকে নিয়ন্ত্রণ করতে সহায়তা করে।

সজিনা পাতা (Moringa Leaves): মরিঙ্গা পাতায় প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং বিটা-ক্যারোটিন থাকে যা ফ্রি রেডিক্যালের বিরুদ্ধে কাজ করে।

এতে কোয়ারসেটিন (Quercetin) নামক অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট আছে যা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রনে সহায়তা করে। মরিঙ্গা পাতায় উপস্থিত আরেকটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট হল ক্লোরোজেনিক অ্যাসিড (Chlorogenic Acid) যা খাবারের পরে ব্লাড সুগারকে স্থিতিশীল করতে সাহায্য করে।

সজিনার পাতা লিভারের কোষের মেরামতকে ত্বরান্বিত করে। পাতায় পলিফেনলের (Polyphenols) উচ্চ ঘনত্ব রয়েছে যা লিভারের অক্সিডেটিভ ক্ষতি থেকে লিভারকে রক্ষা করে এবং এমনকি এটি কমাতে পারে। এগুলো লিভারে প্রোটিনের মাত্রা বাড়ায়। যাদের মাইগ্রেন আছে বা বারবার মাথাব্যথায় ভুগছেন তারা নিয়মিত এইটা খেতে পারেন।

এই পাতাগুলি মেজাজের ভারসাম্যকারী (Deppression Control) হিসাবেও কাজ করে কারণ তারা সেরোটোনিন (Serotonin), ডোপামিন (Dopamine), এবং নোরাড্রেনালিনের (Noradrenaline) মতো নিউরোট্রান্সমিটারের উৎপাদনকে ভারসাম্য করে। যা স্মৃতি, মেজাজ এবং উদ্দীপনা-প্রতিক্রিয়ার জন্য গুরুত্বপূর্ণ। বিজ্ঞানীরা বিশ্বাস করেন যে আইসোথিওসায়ানেট (Isothiocyanates) হল মরিঙ্গা পাতার প্রধান প্রদাহরোধী যৌগ।


Leave a Reply

Your email address will not be published.